খুজুন

Ads

Myself

Lanzu

Fun

ফটো গ্যালারি

বিশ্বকাপজয়ী জার্মান খুশি ‘জঘন্য’ ওজিল অবসর নেওয়ায় !

এই এক ছবিতেই কত কিছু বদলে গেল! ছবি: রয়টার্স

এই এক ছবিতেই কত কিছু বদলে গেল! ছবি: রয়টার্স

লাঞ্জু আহমেদ

বর্ণবাদী গালি শুনতে আর ভালো লাগছিল না। ২০১৪ বিশ্বকাপজয়ী মেসুত ওজিলকে বিশ্বকাপ থেকে বাদ পড়ার পর শুনতে হয়েছিল বর্ণবাদী কথাবার্তা। এতে বীতশ্রদ্ধ হয়েই অবসরের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আর্সেনাল মিডফিল্ডার। এমন ঘটনার পর সভার সহানুভূতি পাচ্ছেন ওজিল। তবে ব্যতিক্রম উলি হোয়েনেস। বায়ার্ন মিউনিখ সভাপতি সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হোয়েনেস ওজিলের এ সিদ্ধান্তে খুশি হয়েছেন। তাঁর চোখে গত চার বছর ধরেই জঘন্য খেলছিলেন ওজিল।

বিশ্বকাপের আগেই ঝামেলায় পড়েছিলেন ওজিল। তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ানের সঙ্গে লন্ডনে দেখা করে আর্সেনালের জার্সি উপহার হিসেবে দিয়েছিলেন তিনি। সঙ্গে ছিলেন আরেক তুর্কি বংশোদ্ভূত ফুটবলার ইলকায় গুনদোয়ান। এ ব্যাপারটা জার্মানরা মেনে নিতে পারেনি। তুরস্ক আর জার্মানির কূটনৈতিক সম্পর্ক খারাপ হওয়ার কারণে বিপাকে পড়েছিলেন ওজিল আর গুনদোয়ান। জার্মান সংবাদমাধ্যম রীতিমতো মানসিক অত্যাচার করেছে ওজিলের ওপর।

জার্মান ফুটবল ফেডারেশনের প্রধান রেইনহার্ড গ্রিনডেল বলেছিলেন, ওজিলের উচিত সমর্থকদের কাছে এ ঘটনার ব্যাখ্যা দেওয়া। বিশ্বকাপ দলের ম্যানেজার ওলিভার বিয়েরহফও বলেছেন, জোয়াকিম লো এমন অবস্থায় ওজিলকে দলে না রাখলেও পারতেন! বিশ্বকাপের পর সবকিছু যখন ঠান্ডা হয়ে আসছে প্রায়, তখনই আবার আগুন জ্বালালেন। দলের হর্তাকর্তাদের এমন আচরণে ক্ষুব্ধ ওজিল যত দিন জার্মান দলের মধ্যে বর্ণবাদী আচরণ থাকবে, তত দিন আর জাতীয় দলে না খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

হোয়েনেসের চোখে ওজিলের এ সিদ্ধান্তে জার্মানিরই লাভ হবে। ১৯৭৪ বিশ্বকাপ জয়ী দলের সদস্য এই জার্মানের ভাষায়, ‘আমি খুশি এ ঘটনা এখানেই শেষ হচ্ছে। সে বহু বছর ধরেই জঘন্য খেলছিল। সে সর্বশেষ কোনো ট্যাকল জিতেছিল ২০১৪ বিশ্বকাপের আগে। এখন সে আর ওর বাজে পারফরম্যান্স এখন এ ছবির (ওজিল ও এরদোয়ানের ছবি) পেছনে লুকাচ্ছে।’

বায়ার্ন মিউনিখের বিপক্ষে চ্যাম্পিয়নস লিগে ওজিলের ক্লাব আর্সেনাল বরাবরই বাজে খেলে। এর পেছনে নাকি ওজিলই সবচেয়ে বেশি ভূমিকা রেখেছেন। হোয়েনেসের যুক্তি, ‘যখনই আর্সেনালের সঙ্গে ম্যাচ ছিল, ওকে নিয়ে আমরা খেলেছি, কারণ আমরা জানতাম ওই দলের সবচেয়ে দুর্বল দিক। ওর যে সাড়ে তিন কোটি অনুসারী আছে, ওরা বাস্তব পৃথিবীতে থাকে না। ওদের ধারণা, ওজিল একটা ক্রস করলেই সেটা অসাধারণ। আমাদের দেশে অগ্রগতির প্রক্রিয়ার অবস্থা বেশ খারাপ। আমাদের সেখানেই ফেরা উচিত, যেটা গুরুত্বপূর্ণ—খেলা। আর খেলার দৃষ্টিকোণ থেকে সামনের বছরগুলোতে জাতীয় দলে ওজিলের কোনো জায়গা নেই।’

     এই ক্যাটাগরির আরও পোস্ট...